বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪২ পূর্বাহ্ন
Logo
নোটিশ :
Wellcome to our website...

অনলাইনে ফ্রিতে ইনকাম করার উপায়? যানতে এই ব্লগটা পরুন

মোঃ নাছির উদ্দিন / ১৭৭ বার
আপডেটের সময় শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১
অনলাইন থেকে আয় করার সহজ উপায়

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা অনলাইন থেকে ইনকাম করার সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করব।

এমনকি যে মাধ্যমটা নিয়ে আজকে আলোচনা করব সেটা সম্পূর্ন ফ্রিতে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায়। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে টপিক নিয়ে আলোচনা শুরু করা যাক।

সম্পূর্ণ ফ্রিতে অনলাইন থেকে আয় করার সেরা উপায়?

ব্লগিং করে আয়: হ্যাঁ বন্ধুরা ব্লগিং করে অনলাইনে সম্পুর্ন ফ্রী তে আপনি আরনিং শুরু করতে পারেন। ব্লগিং করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে একটি প্ল্যাটফরম খুলতে হবে। এবং তারপর সেখানে আপনাকে রাইটিং বা লেখালেখি করে কাজ করতে হবে। আশা করি বোঝাতে পেরেছি কিভাবে ব্লগিং করে আয় করা যায় সেটা।

 

এখন বর্তমান সময়ে একটি প্লাটফর্ম বা ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য অনেক বড় বড় প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম হল ওয়ার্ডপ্রেস। এবং দ্বিতীয় টি হল ব্লগার। বর্তমান সময়ে এই দুইটি প্ল্যাটফর্ম খুবই জনপ্রিয়। ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য অনলাইনে আরো নানা ধরনের প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। তবে তার ভিতরে এই দুটি প্ল্যাটফর্ম অন্যতম।

 

আজকের আর্টিকেলের ট্রপিক যেহেতু ফ্রিতে কিভাবে ব্লগিং করে আয় করা যায়, সেজন্য আমাদের আগে ওয়েবসাইট তৈরি সম্পর্কে জানা দরকার। এবং কিভাবে আর্নিং টা আসে এটাও জানা খুবই প্রয়োজন। তারপর আমরা জেনে নিব ফ্রিতে কিভাবে ব্লগিং করে অনলাইন থেকে আয় করা যায়।

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি প্রয়োজন?

সাধারণত একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য কোন একটি প্লাটফর্মে যুক্ত হতে হবে। আপনি ওয়ার্ডপ্রেস এ অথবা ব্লগারের সম্পূর্ণ ফ্রিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। তবে ওয়েবসাইট সম্পূর্ণ তৈরি করার জন্য আপনার নানা রকম জিনিস এর প্রয়োজন হবে। যেমন ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য একটি থিম প্রয়োজন। তেমনি ভাবে ডোমেইন এবং হোস্টিং এর প্রয়োজন। মাত্র এই তিনটা জিনিস দিয়ে খুব সহজে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়।

আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেসে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে, সর্বপ্রথম ফ্রিতে ওয়েবসাইট তৈরি করার সুযোগ তারা দিবে। তারপর আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর বেড়ে গেলে আপনাকে ডোমেইন-হোষ্টিং অবশ্যই প্রয়োজন হবে। এগুলো না থাকলে আপনাকে আর প্রেসে অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে দিতে পারে।

থিম কি: থিম হলো আপনার ওয়েবসাইটটি ডিজাইন। একটি ওয়েবসাইটের জন্য থিম খুবই প্রয়োজন আকর্ষণ করার জন্য। থিম ছাড়া আপনার ওয়েবসাইটটি সৌন্দর্য থাকবে না। থিম দিয়েই কেবল মাত্র ওয়েবসাইটে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা যায়।

ডোমেইন কি: ডোমেইন হলো আপনার ওয়েবসাইটের নাম। যেমন আপনি ওয়ার্ডপ্রেসে একটি ওয়েবসাইট সর্বপ্রথম তৈরি করলে তারা একটি ডোমেইন দিবে তার নাম হবে যেমন : nasirtechbd.com

এখন প্রশ্ন হলো আপনার ওয়েবসাইটের এত বড় নাম আপনার পছন্দ হবে না। এমনকি অন্য কারোরই এত বড় নাম সার্চ করার ইচ্ছুক হবে না। আপনার ওয়েবসাইটের নাম যদি হতো nasirtechbd.com তাহলে আপনার পছন্দ হতো। এবং আপনার ডোমেইন কি সুন্দর হত। এটাই হলো ওয়েবসাইটের ডোমেইন।

হোস্টিং: আপনি ফসল ফলাতে চাচ্ছেন। এখন ফসল ফলানোর জন্য নিশ্চয়ই আপনার জমির অথবা জায়গার প্রয়োজন হবে। এই যে স্থান বা জায়গা এটাই হল ওয়েবসাইটের হোস্টিং। এই হোস্টিং এ আপনার ওয়েব সাইটের সকল ডাটাবেজ সুরক্ষিত থাকবে। আপনার ওয়েবসাইটের ইমেজ ভিডিও অথবা আর্টিকেলগুলো রাখার জন্যই হোস্টিং এর প্রয়োজন।

একটি ওয়েবসাইট কমপ্লিট করার জন্য আপনার অনেক টাকা খরচ হতে পারে। যেমন একটি থিম কিনতে হবে একটি ডোমেইন কিনতে হবে এবং হোস্টিং এর প্রয়োজন হবে। এই তিনটা জিনিস আপনাকে টাকা দিয়ে কিনতে হবে। ডোমেইন এবং হোস্টিং এর জন্য প্রতি বছরে বছরে আপনাকে পে করতে হবে। যেটা ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে বাধ্যতামূলক।

আজকের আর্টিকেলটির টপিক ছিল কিভাবে ফ্রিতে ব্লগিং করে আমরা আয় করতে পারি অনলাইনে।আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন যে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে এবং টাকা ইনকাম করার জন্য খরচ করতেই হয়। কিন্তু আমার আর্টিকেলটি তো ফ্রিতে কিভাবে টাকা আয় করা যায় ব্লগিং করে তাই না।

আমি আগেই বলেছিলাম বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম এর একটি প্লাটফর্ম হল ব্লগার। যেখান থেকে আপনারা ওয়েবসাইট তৈরি করে আর্নিং করতে পারেন। এই ব্লগার গুগলের একটি প্রডাক্ট। আর এই ব্লগেই আপনারা সম্পূর্ণ ফ্রিতে ব্লগিং করে আর্নিং করতে পারবেন। ব্লগারে আপনি চাইলে সম্পূর্ন ফ্রীতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন।

এমনকি ব্লগারে ডোমেইন এবং হোস্টিং এর কোনো প্রয়োজন নেই। ফ্রীতেই ব্লগারে কাস্টম একটি ডোমেইন দিয়ে থাকে। চাইলে আপনারা আজীবন এই কাস্টম ডোমেইন নিয়ে আপনার ওয়েবসাইট চালাতে পারেন। আর হোস্টিং এর যে ব্যাপার সেটা নিয়েও আপনাকে চিন্তা করতে হবে না।আপনার যে জিমেইল আইডি আছে সেখানে ফ্রিতে 15gb জায়গা থাকে।

তাছাড়া আপনারা জায়গা শেষ হয়ে গেলে অন্য একটি জিমেইল এড করে আজীবন ব্লগিং করতে পারেন কোনো পেইড হোস্টিং ছাড়াই। আর থিমের যে ব্যাপার সেটা আপনি ফ্রিতে ইউজ করতে পারেন। ওয়েবসাইট থেকে সাধারণত আর্নিং হয় এডসেন্সের মাধ্যমে। বর্তমানে ব্লগারে কোন টাকা খরচ না করেই এডসেন্স অ্যাপ্রুভ হয়।

আর অ্যাডসেন্সে এপ্রুফ মানে আপনার টাকা আরনিং শুরু হয়ে যাওয়া। ব্লগারে আপনারা কোন টাকা খরচ ছাড়াই অনলাইনে আয় করতে পারবেন। তার জন্য আপনাকে কোন খরচ করতে হবে না। কোন থিম এর খরচ করতে হবে না। কোন প্রকার ডোমেইন এর খরচ করতে হবে না।কোন প্রকার হোস্টিং এর খরচ আপনাকে করতে হবে না। আপনারা চাইলে এই ব্লগারের সম্পূর্ণ ফ্রি তে কাজ করে অন করতে পারেন।

আর্টিকেল এর শেষ কথা:

বন্ধুরা আমার আজকের আর্টিকেলটি এখানেই শেষ করছি তবে, আজকে আপনাদের সংক্ষিপ্তভাবে যে কথাটি বোঝাতে চেয়েছি সেটা হলো আপনারা সম্পূর্ণ ফ্রিতে ব্লগারে ওয়েবসাইট তৈরি করে অনলাইনে আয় করতে পারবেন।এই ব্লগারে আপনারা কোন প্রকার টাকা খরচ বাদে আয় করতে পারেন।

এমনকি বর্তমান সময়ে ব্লগারে কোন প্রকার টাকা খরচ না করেই হাজার হাজার ওয়েবসাইট এপ্রুভ হয়েছে। তাই আপনারা আজ থেকেই ব্লগারে আরনিং শুরু করে দিতে পারেন।আর্টিকেল সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করতে একদমই ভুলবেন না। তবে কেউ বাজে কোন কমেন্ট করবেন না। নতুন আর্টিকেল লেখালেখি করছি ভুল হলে জানিয়ে দিবেন আমি সংশোধন হয়ে নিব ইনশাআল্লাহ। ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
x