শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন
Logo
নোটিশ :
Wellcome to our website...

Website টাকা ইনকাম করার পুরো গাইডলাইন বাংলাতে

মোঃ নাছির উদ্দিন / ২৬০ বার
আপডেটের সময় রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১

ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম?

আপনি যদি অনলাইনে ইনকাম করতে চান তাহলে, কোন একটি পদ্ধতি অবলম্বন করে ইনকাম করতে হবে। অনলাইনে ইনকাম করার অন্যতম একটি পদ্ধতি হলো ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম। এই পদ্ধতি আজ থেকে নয় প্রায় অনেক বছর ধরে এগিয়ে আসছে। আর বর্তমান সময়ে ওয়েবসাইট থেকে প্রচুর পরিমাণে টাকা ইনকাম করা যায়। তাই আপনি চাইলেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করার পূর্বে সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। একটি ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকামের জন্য তেমন কোনো যোগ্যতা বা বয়সের প্রয়োজন হয় না। তাই যে কেউ চাইলে অনলাইনে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা ইনকাম করতে পারে। একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে কয়েকটি জিনিস প্রয়োজন। অনলাইনে ওয়েব সাইট তৈরি করার প্লাটফর্ম অনেক রয়েছে ‌। তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় দুটি প্লাটফর্ম হল ওয়ার্ডপ্রেস, ব্লগার।

বর্তমান সময়ে এই দুটি প্লাটফর্ম থেকে বেশির ভাগ লোক ওয়েবসাইট তৈরি করে। তাই আপনারা চাইলেও এ প্লাটফর্ম থেকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারবেন। তাই সর্বপ্রথম আপনাকে যেকোন একটি প্লাটফর্মে যুক্ত হতে হবে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য। তারপর আপনার ওয়েবসাইটটি সাজাতে হবে। একটি কমপ্লিট ওয়েবসাইট তৈরি করতে তিনটা জিনিসের প্রয়োজন হয়।

  1. এক নম্বর থিম
  2. দুই নম্বর ডোমেইন
  3. তিন নম্বর হোস্টিং

এই তিনটা জিনিস দিয়েই আপনারা একটি পরিপূর্ণ ওয়েবসাইট তৈরি করে, এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আয় করতে পারবেন। আমরা এখন থিম, ডোমেইন, এবং হোস্টিং সম্পর্কে। সংক্ষিপ্ত আকারে বিস্তারিত জেনে নেওয়ার চেষ্টা করব।

থিমঃ থিম হলো আপনার ওয়েবসাইটের সৌন্দর্য। আপনার ওয়েবসাইটটি কোথায় কি আছে কোথায় থাকবে মানুষ কিভাবে দেখবে? এই সমস্ত কাজ গুলো থিম করে থাকে। তাই একটি ওয়েবসাইটের জন্য থিম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। থিম আপনার ওয়েবসাইটের লোক চমকে দিতে পারে ‌।আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন একটি ওয়েবসাইটের জন্য থিম কতটা প্রয়োজন।

ডোমেইনঃ ডোমেন হলো আপনার যে ওয়েবসাইট সেটার নাম। যেমন trickbd.com ডটকম ডট নেট ডট ওআরজি ইত্যাদি। এগুলোকে অনেকে মাস্টার ডোমেন বলে থাকে। আপনার ওয়েবসাইটের নামটি আরো সুন্দর করে দিতে পারে ডোমেন। এই ডোমেইন ক্রয় করার জন্য অনলাইনে অনেক প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। আপনারা চাইলে আপনার ওয়েবসাইটে সুন্দর একটি ডোমেইন ক্রয় করে অ্যাড করতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইটে।

হোস্টিংঃ হোস্টিং হল জায়গা। ধরুন আপনি ফসল চাষ করতে চান? তাহলে নিশ্চয় জায়গার প্রয়োজন হবে। জায়গা ছাড়া আপনি কিভাবে ফসল চাষ করবেন। আর ওয়েবসাইটের ও জায়গা প্রয়োজন হয়ে থাকে। কারণ ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট যেমন ছবি, আর্টিকেল, ভিডিও, অডিও, ইমেজ ইত্যাদি। এগুলো আমাদের ওয়েবসাইটে নিশ্চয়ই থাকবে বা রাখতে হবে। ঠিক এ কারণেই হোস্টিং এর প্রয়োজন হয়। হোস্টিং ক্রয় করার জন্য অনলাইনে অনেক ধরনের কোম্পানি রয়েছে। এই কোম্পানি থেকে আপনাকে হোস্টিং ক্রয় করে আপনার ওয়েবসাইটে রাখতে হবে।

ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম শুরু কিভাবে হয়?

ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম যেভাবেঃ এতক্ষণ আমরা কিভাবে একটি পরিপূর্ণ ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। এ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করছিলাম। ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য কোন কোম্পানি এর সাথে যুক্ত হতে হবে। এবং ওয়েবসাইট টি তৈরি করতে হবে সেই প্লাটফর্মে। তারপর আপনার ওয়েবসাইটে থিম ডোমেইন এবং হোস্টিং দরকার হবে। এগুলো আপনার ওয়েব সাইটে এড করার পর। আপনার ওয়েবসাইটটি বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট পাবলিশ করতে হবে।

এইজন্য আপনি একটি নিস নিয়ে কাজ করতে পারেন। ধরুন যে আপনি আপনার ব্যবসার জন্য ওয়েবসাইট তৈরী করেছেন।এবং আপনার ব্যবসা থেকেই ওয়েবসাইটে ইনকাম করতে চান। তাহলে এখন এই ওয়েবসাইটে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে বিভিন্ন কন্টেন্ট পাবলিশ করতে হবে।সেটা আর্টিকেল হতে পারে ছবি ইমেজ অথবা ভিডিও হতে পারে। তবে অবশ্যই আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবেন। এবং এই আর্টিকেলের ভিতরে ভিডিও ছবি এগুলো ব্যবহার করবেন।

এভাবে করে আপনাকে কাজ করে যেতে হবে আপনার ওয়েবসাইটে। তারপর যখন বেশ ভালো পরিমাণে আপনার ওয়েবসাইটে কনটেন্ট পাবলিশ করবেন। ধরুন ২০ থেকে ৩০ টা আর্টিকেল পাবলিশ করেছেন আপনার ওয়েবসাইটে।এখন আপনি চাচ্ছেন আপনার ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম শুরু করতে তাহলে, অবশ্যই আপনার আর্টিকেলগুলো কপি মুক্ত হতে হবে এবং সর্বনিম্ন ৫০০ শব্দের উপরে আর্টিকেল থাকতে হবে।তাহলে আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম শুরু করতে পারবেন।

তবে যত বেশি আর্টিকেল পাবলিশ করবেন এবং বেশিদিন আপনার ওয়েবসাইটে কাজ করবেন। ততই আপনি টাকা ইনকাম শুরু করতে পারবেন তাড়াতাড়ি। একটি ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম শুরু করার জন্য অনেক পদ্ধতি রয়েছে। কিন্তু বেশিরভাগ লোকেরা ওয়েবসাইট থেকে সর্বপ্রথমে যেভাবে টাকা ইনকাম শুরু করে। আমরা সর্বপ্রথম সেভাবেই শুরু করবো টাকা ইনকাম ওয়েবসাইটে। ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আমাদের নতুন একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। আর সেটার নাম হলো গুগল এডসেন্স।

গুগল এডসেন্স থেকে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম শুরু এবং উত্তোলন?

টাকা ইনকাম শুরু ওয়েবসাইটের মাধ্যমেঃ আপনার ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট পরিমাণ কিছু আর্টিকেল পাবলিশ করার পর আপনি টাকা ইনকাম করার জন্য। গুগল এডসেন্সে এপ্লাই করতে পারেন। প্রথমে গুগল এডসেন্স ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন। তারপর কিছুদিন অপেক্ষা করুন। কিছুদিনের ভিতর আপনার এডসেন্স একাউন্ট এপ্রুভ হবে কিনা সেটার ফলাফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

কিছু দিনের ভিতরে যদি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য আপনার এডসেন্স একাউন্ট এপ্রুভ হয়ে যায় তাহলে, আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন বসাতে পারবেন। এখন আপনার ইনকাম হবে এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। যত লোক আপনার ওয়েবসাইটে গিয়ে এই বিজ্ঞাপন গুলো দেখবে ততো আপনার ইনকাম হবে। এবার আপনার ওয়েবসাইটে এভাবে করে টাকা ইনকাম করতে হবে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে।

আপনার ওয়েবসাইটের টাকাগুলো এখন আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে যুক্ত হবে। এবং এভাবে করে আপনাদের ওয়েবসাইটে টাকা ইনকাম করতে হবে। এবং ইনকাম কিভাবে হচ্ছে সবকিছু গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে দেখতে পারবেন। এবার প্রশ্ন আসতে পারে ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে টাকা উত্তোলন করা যায়?আমরা এতক্ষন ওয়েবসাইট তৈরি করে কিভাবে ইনকাম শুরু করা যায় এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করলাম!এবার আমরা জানবো কিভাবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার পর উত্তোলন করতে হয়?

ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম উত্তোলন কিভাবে করা যায়

টাকা উত্তোলনঃ আমি আগেই বলেছিলাম ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম শুরু করার জন্য অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। এবং এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন গুলো আপনার ওয়েবসাইটে দেখিয়ে টাকা ইনকাম শুরু হবে। এবং টাকাগুলো যোগ হবে আপনার এডসেন্স একাউন্টে।এবং আপনারা টাকা উত্তোলন করতে পারবেন এই এডসেন্স একাউন্ট এর মাধ্যমেই। হ্যা বন্ধুরা আপনারা ঠিকই শুনেছেন। ওয়েবসাইটের থেকে এডসেন্সের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করতে হয়।

তার জন্য সর্বপ্রথম আপনার এডসেন্স একাউন্টে ১০ ডলার থাকতে হবে। আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে ১০ ডলার হলে আপনার এড্রেস টি ভেরিফাই করতে হবে। আপনি যে এনআইডি কার্ড এর অ্যাড্রেস দিয়ে গুগল এডসেন্স তৈরি করেছিলেন সেটি।কার জন্য গুগল থেকে আপনার এড্রেস এ একটি চিঠি আসবে। এবং সেটিতে একটি পিন কোড থাকবে এবং এই পিন কোড আপনাকে গুগল এডসেন্স একাউন্টে সাবমিট করতে হবে। ব্যাস তাহলে আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টের অ্যাড্রেস ভেরিফাইড।

তারপর আপনাকে আরো ইনকাম করতে হবে গুগল এডসেন্স একাউন্টে। আগে ছিল ১০ ডলার এবং এখন ইনকাম করতে হবে ৯০ ডলার অর্থাৎ মোট ১০০ ডলার। যখন আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে ১০০ ডলার জমা হয়ে যাবে। তখন গুগল সেই মাসের শেষের দিকে আপনার ব্যাংক একাউন্টে 💰 টাকা ট্রান্সফার করে দিবে। ঠিক এভাবে করেই গুগোল অ্যাডসেন্সে আপনারা টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। আশাকরি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করা যায়।

শেষকথাঃ

শুধু একটা কথা মনে রাখবেন, আপনি সৎ উপায়ে সঠিকভাবে যেখানেই পরিশ্রম করুন না কেন। আপনার সফলতা একদিন আসবেই। অনলাইনে ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় আমাদের বাংলা আইটি ব্লগে আর্টিকেল আছে। আপনি চাইলে সেগুলা পড়ে নিতে পারেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন







Theme Created By ThemesDealer.Com
x
x