1. admin@nasirtechbd.com : admin :

নতুন ফ্রিলান্সারদের সফল হওয়ার গাইডলাইন।

  • শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১
  • ৭১ বার পড়া হয়েছে

আশা করি সবাই ভালো আছেন।আজকের আমার এই লেখাটি তাদের জন্য যারা ভবিষ্যতে ফ্রিল্যান্সিং করতে চাচ্ছেন বা কিছুদিন হলো ফ্রিল্যান্সিং করা শুরু করেছেন।তারা কিভাবে মার্কেটপ্লেসে নিজেকে টিকিয়ে রাখবে,প্রচুর পরিমান কাজ কিভাবে পাবে,মার্কেটপ্লেস ছারা ও আরো কিভাবে ইনকাম করবে এবং অবশ্যই একজন সফল ফ্রিল্যান্সার কীভাবে হতে পারবে তা নিয়ে আলোচনা করা হবে।তাই যদি আপনি একজন নতুন ফ্রিলান্সার হয়ে থাকেন তাহলে এই পোষ্টটি আপনাকে অনেক সাহায্য করবে।তো চলুন একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য ১০ টি গুরুত্বপূর্ণ উপায় জেনে নেওয়া যাক।

১.প্রতিনিয়ত কাজ শিখতে হবে।যদি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে চান তাহলে আপনাকে এই সেক্টরে টিকে থাকতে হবে।আর এর জন্য আপনাকে প্রতিদিন কাজ শিখার মানসিকতা থাকতে হবে।যেমন আপনি যদি ৬ ঘন্টা কাজ করে ইনকাম করেন প্রতিদিন তাহলে আপনাকে ১ থেকে ২ ঘন্টা সময় নতুন কিছু শিখার জন্য ব্যয় করতে হবে।

২.নিজের একটা পার্সোনাল ওয়েবসাইট তৈরি করবেন।আপনি নিজের পার্সোনাল ওয়েব সাইট তৈরি করে সেখানে আপনার কিছু কাজের ডিজাইন দিয়ে দিবেন।যার ফলে আপনার কাজ পাওয়াটা অনেক সহজ হয়ে যাবে।আর অনেক ক্লায়েন্ট আছেন যারা মার্কেটপ্লেসের বাইরে ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে কাজ করিয়ে থাকে।তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি তাদের চোখে পরলে তাদের কাজগুলো করেও ইনকাম করার একটি সুযোগ তৈরি হবে।

৩.বায়ারদের সাথে সময়,ব্যবহার,কাজ এসব নিয়ে যেনো কোনো সমস্যা না হয়।কারণ বায়াররা যদি আপনাকে এইসব সমস্যার কারনে খারাপ রিভিউ দিয়ে চলে যায় তাহলে আপনার কাজ পাওয়া একটু কঠিন হয়ে পড়বে।তাই বায়ারদের সাথে তাল মিলিয়ে চলার চেষ্টা করবেন।

৪.নিজেকে একটা ব্রেন্ড হিসেবে তৈরি করুন।মানে আপনি যখন কোনো বায়ারের সাথে কাজ করবেন তখন কাজটি এমনভাবে করবেন যেন কাজে কিছু নতুনত্ব থাকে।তাহলে ক্লায়েন্ট আপনাকে অনেক অভিজ্ঞ ভাববে।এবং যখনি তার কোনো কাজের প্রয়োজন হবে সাথে সাথে আপনাকে ম্যাসেজ করবে।

৫.আপনার নিজের সম্পর্কে একটু ঘুচিয়ে লেখুন।আপনি কাজে বিট করার সময় এমনভাবে লিখবেন যেন প্রথম লাইনটা পরে বায়ার কাজ দেওয়ার জন্য আগ্রহী হয়।আর আপনার প্রোফাইলটা ও একটু আধুনিক করে রাখবেন।

৬.কাজের জন্য অর্থের হিসাবটা ও জরুরি।আপনি এত বেশি অর্থ চাইবেন না যেন ক্লায়েন্ট তা দেখে ভয় পেয়ে চলে যায়।আবার এত কম অর্থ চাইবেন না যেন ক্লায়েন্টের আপনার প্রতি খারাপ মানসিকতা আসে।

৭.আপনি মার্কেটপ্লেস ছারাও ফেসবুক,ইন্সটাগ্রাম,টুইটার,ইউটিউবের মাধ্যমে ও ক্লায়েন্ট পেয়ে থাকলে অফলাইনে  কাজ করে দিতে পারবেন।শুধু মাএ মার্কেটপ্লেসের উপর নির্ভর করে বসে থাকবেন না।অফলাইনের কাজগুলো  আপনাকে আরো অভিজ্ঞ করে তুলবে।

৮.আপনার প্রোফাইল ছবিটা অবশ্যই সোজা হয়ে হাসিমুখে তুলবেন।আপনি যদি বাকা হয়ে বা নিজের ছবি না দিয়ে ফল,ফুলের ছবি দিয়ে রাখেন তাহলে আপনি কাজ তো করবেন দূরের কথা আপনার একাউন্ট এপ্রুভ করা হবে না।

৯.কাজের জন্য সময় নির্ধারন করুন।অনেক ফ্রিল্যান্সাররা বলে থাকে যে ফ্রিল্যান্সিং করলে নাকি রাত জাগতে হয়।আসলে আপনি দিনের বেলা ও কাজগুলো করতে পারবেন।কিন্তু ফ্রিল্যান্সাররা রাত জাগে কারণ বায়াররা রাতেরবেলা অনলাইনে থাকে তাই তাদের সাথ কথা বলার জন্য।তাই একটা সময় নির্ধারন করুন।একদিন কাজ করে যদি আর ৫,৬ দিন না আসেন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং আপনার জন্য না।

১০.ইংরেজি ভাষাতে একটু লেখতে, পড়তে, বুঝতে জানতে হবে।ইংরেজিতে যে এত দক্ষ হতে হবে তা কিন্তু না বরং আপনার সাধারণ জ্ঞান থাকলেই চলবে।বাকিটা কাজ করতে করতে দক্ষ হয়ে যেতে পারবেন।

নতুন ফ্রিলান্সাররা অবশ্যই এই ১০ টি উপায় মেনে তারপর ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করবেন।এবং দেখবেন আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার অবশ্যই সফল হবে।ভালো থাকবেন সবাই,ধন্যবাদ।

 

নতুন নতুন টিপস্ ও রেডিমেট ডকুমেন্ট ফরমেট পেতে 
আমার ফেসবুক পেজে লাইক দিন  

তথ্য সংগ্রহ ও উপস্থাপনায়: মোঃ নাছির উদ্দিন

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2020 - 2021 Nasir Tech BD
Customized BY NewsTheme