শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:১৮ অপরাহ্ন
Logo
নোটিশ :
Wellcome to our website...

রিটার্নের সাথে যে সকল ডকুমেন্ট দাখিল করতে হবে

মোঃ নাছির উদ্দিন / ১৪৫২ বার
আপডেটের সময় মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

রিটার্নের সাথে যে সকল ডকুমেন্ট দাখিল করতে হবে
বিভিনড়ব উৎসের আয়ের স্বপক্ষে যে সকল ডকুমেন্টের ফটোকপি দাখিল করতে হবে আয়ের খাতওয়ারী সেগুলোর একটি তালিকা নিচে দেয়া হলোঃ
বেতন খাতঃ
(ক) বেতন বিবরণী;
(খ) ব্যাংক এ্যাকাউন্ট থাকলে কিংবা ব্যাংক সুদ খাতে আয় থাকলে ব্যাংক বিবরণী বা ব্যাংক সার্টিফিকেট;
(গ) বিনিয়োগ ভাতা দাবি থাকলে তার সপক্ষে প্রমাণাদি। যেমন , জীবন বীমার পলিসি থাকলে প্রিমিয়াম পরিশোধের প্রমাণ।

নিরাপত্তা জামানতের সুদ খাতঃ
(ক) বন্ড বা ডিবেঞ্চার যে বছরে কেনা হয় সে বছরে বন্ড বা ডিবেঞ্চারের ফটোকপি;
(খ) সুদ আয় থাকলে সুদ প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নপত্র;
(গ) ব্যাংক বা প্রাতিষ্ঠানিক ঋণ নিয়ে বন্ড বা ডিবেঞ্চার কেনা হয়ে থাকলে ঋণের সুদের সমর্থনে ব্যাংক সার্টিফিকেট/ব্যাংক বিবরণী বা প্রাতিষ্ঠানিক প্রত্যায়নপত্র;

গৃহ সম্পত্তি খাতঃ
(ক) বাড়ি ভাড়ার সমর্থনে ভাড়ার চুক্তিনামা বা ভাড়ার রসিদের কপি, মাসভিত্তিক বাড়ি ভাড়া প্রাপ্তির বিবরণ এবং প্রাপ্ত জমা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক হিসাব বিবরণী
(খ) পৌর কর, সিটি কর্পোরেশন কর, ভূমি রাজস্ব প্রদানের সমর্থনে রসিদের কপি;
(গ) ব্যাংক ঋণের মাধ্যমে বাড়ি কেনা বা নির্মাণ করা হয়ে থাকলে ঋণের সুদের সমর্থনে ব্যাংক সার্টিফিকেট;
(ঘ) গৃহ সম্পত্তি বীমাকৃত হলে বীমার প্রিমিয়ামের রসিদের কপি।

মূলধনী মুনাফাঃ
(ক) স্থাবর সম্পত্তি বিμয়ের দলিলের কপি;
(খ) উৎসে আয়কর জমা হলে তার চালান/পে-অর্ডারের ফটোকপি;
(গ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কো¤পানীর শেয়ার লেনদেন থেকে মুনাফা হলে এ সংμান্ত প্রত্যায়নপত্র;

অন্যান্য উৎসের আয়ের খাতঃ
(ক) লভ্যাংশ খাতে আয় থাকলে ব্যাংক বিবরণী, ডিভিডেন্ট ওয়ারেন্টের কপি বা সার্টিফিকেট;
(খ) সঞ্চয়পত্র হতে সুদ আয় থাকলে সঞ্চয়পত্র ভাঙ্গানোর সময় বা সুদ প্রাপ্তির সময় নেয়া সার্টিফিকেটের কপি;
(গ) ব্যাংক সুদ আয় থাকলে ব্যাংক বিবরণী/সার্টিফিকেট;
(ঘ) অন্য যেকোন আয়ের উৎসের জন্য প্রাসংগিক কাগজপত্র।
আয়কর পরিশোধ উৎসে কর কর্তনসহঃ
(ক) কর পরিশোধের সমর্থনে চালানের কপি, পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট/ একাউন্ট পেয়ী চেকের কপি; ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয়কর ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে পরিশোধ করা যায়। এর
ঊর্ধ্বে আয়কর পরিশোধের ক্ষেত্রে পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট/একাউন্ট পেয়ী চেক ব্যবহার করতে হবে। তবে যে কোন অংকের কর পে-অর্ডারের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।
(খ) যে কোন খাতের আয় হতে উৎসে আয়কর পরিশোধ করা হলে কর কর্তনকারী কর্তৃপক্ষের প্রত্যায়নপত্র।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
Theme Created By ThemesDealer.Com
x
error: Content is protected !!
x
error: Content is protected !!